মহামারি গাঁথা – জীবনসঙ্গী হারানো বৃদ্ধদের স্বরণে

সিঞ্চিত তরলে গড়ল নেমেছে ধরায়, বৃদ্ধের বুকে আগুন লেগেছে, ধরণী পুড়ছে খরায়। নিথর নিবিড় আলিঙ্গনে বধূ ছেড়েছে ঘর, চুন সুরকির প্রিয় ঘরখানা, হয়ে গেছে যেন পর। মধ্যশ্রাবনে মেহগনি তলা সেজেছে বিস্তারিত...

ঘুন

ঘুন ধরে কি শুধু কাঠে! ঘুন ধরে মাথায়,কপালে,বুকে, পেটের থলিতে, হৃদয়ে-হৃদয়ে। ভালোবাসা খায় ঘুনপোকাতে, আর মানুষ পোড়ে খুচরা পাপে। মাটি পোড়ে খরতাপে, ক্ষুধা পোড়ে অভাবে। মন পোড়ে, পোড়া শোকে, ঘুনধরা বিস্তারিত...

ভালোবাসা

স্মৃতি হয়ে যেও,ভালোবাসা, বকুলের মতো ফুটে উঠে তুমি ঝরে পরো বালি পথে। দু একটি করে ছড়িয়ে পড়ো পথিকের হাতে হাতে। ব্যাথা হয়ে যেও, প্রিয়তমা। শিশিরের মত কণা কণা হয়ে বাতাসে বিস্তারিত...

গুহা পালানো ছেলে

আমি, কবরের গুহা পালানো ছেলে। মাগো, আমি তোমার ছেলে। দেখতে পাওনা তুমি! তোমার আঁচল ধরে টানি, তোমার কষ্টে মুচরে মরি। ঘুমিয়ে থাক তুমি, তবুও তোমার চোখের কোনের জলের ধারায় ভিজতে বিস্তারিত...

গৃহিনীর মুখ

যুবক ছেলের চোখের জলেতে বিছানা ভিজছে, বুক চিড়ে যায় সন্নিকটের মায়া। ভূ-তলে, ভূ-ধরে হাহাকার তুলে জঠরের ক্ষুধা উঠোনে মেরেছে থাবা। প্রিয়তমা গেছে, প্রিয় রেখে ঘরে, পেয়ারার পাতা ঝরে ঝরে পড়ে, বিস্তারিত...



© All rights reserved © 2018-20 boguratribune.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com