সরকারের ব্যাংক ঋণ বাড়ছেই

সরকারের ব্যাংক ঋণ বাড়ছেই

রাজস্ব আদায় না বাড়ায় ব্যাংক ঋণ নির্ভরতা বাড়ছে

রাজস্ব আদায়ে গতি নেই, কমে গেছে সঞ্চয়পত্রের বিক্রি। এ অবস্থায় ব্যাংক থেকে ঋণ নেয়া বাড়িয়েছে সরকার। অর্থবছরের সাড়ে ছয় মাসেই সরকারের ব্যাংক ঋণ ছাড়িয়ে গেছে অর্ধলাখ কোটি টাকা। যা এ অর্থবছরের পুরো সময়ের লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকা বেশি। অর্থনীতিবিদরা বলছেন, সরকার বেশি ঋণ নিলে বাধার মুখে পড়বে বেসরকারি খাতের বিনিয়োগ।

নতুন ভ্যাট আইন পুরোপুরি বাস্তবায়ন না হওয়া, বিভিন্ন পণ্যে রাজস্ব অব্যাহতিসহ নানা কারণে রাজস্ব আদায়ে গতি ফেরাতে হিমশিম খাচ্ছে এনবিআর। ফলে চলতি অর্থবছরের ৬ মাসে রাজস্ব আদায়ে ঘাটতি সাড়ে ৩১ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে গেছে।

এদিকে, মুনাফায় উৎসে কর বৃদ্ধি সহ নানা রকম কড়াকড়ি আরোপে সঞ্চয়পত্র বিক্রিতেও ভাটা পড়েছে। চলতি অর্থবছরের প্রথম পাঁচ মাসে নিট সঞ্চয়পত্র বিক্রি হয়েছে প্রায় সাড়ে ৫ হাজার কোটি টাকা। যা গত অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে প্রায় ৭৩ শতাংশ কম।

এবারের বাজেটে ব্যাংক থেকে সরকারের ঋণ নেয়ার লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৪৭ হাজার ৩৬৩ কোটি টাকা। রাজস্ব আদায়ে ভাটা আর সঞ্চয়পত্র বিক্রি কমে যাওয়ায় উন্নয়ন ব্যয় মেটাতে ব্যাংক থেকে বেশি ঋণ নিচ্ছে সরকার। বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যমতে, চলতি অর্থবছরের শুরু থেকে ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত বাণিজ্যিক এবং বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে সরকার ঋণ নিয়েছে ৫০ হাজার ৮৪২ কোটি টাকা।

সরকার লক্ষ্যমাত্রার বেশি ব্যাংক ঋণ নেয়ায় উদ্বিগ্ন অর্থনীতিবিদরা।

বিশ্লেষকদের মতে, সরকার বেশি ঋণ নিলে, বেসরকারি খাতকে পর্যাপ্ত অর্থ দিতে পারবেনা ব্যাংকগুলো। এতে ঋণের সুদহারও বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা তাদের।

অর্থবছরের শেষ সময়ে এই প্রবণতা অব্যাহত থাকলে, সরকারের ব্যাংক ঋণ একলাখ কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন অনেকে।

খবরটি শেয়ার করুন...

Comments are closed.




© All rights reserved © 2018-20 boguratribune.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com