একবারেই ৫ ধাপ পদোন্নতি পান ফরিদ

একবারেই ৫ ধাপ পদোন্নতি পান ফরিদ

তুলা উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী পরিচালক ফরিদ উদ্দিন

অবসরে যাওয়ার দেড় মাস আগে একবারেই পদোন্নতি পেয়েছেন ৫ ধাপ। আছে ইচ্ছেমত কর্মচারী নিয়োগ, প্রকল্পের টাকা আত্নসাত, ল্যাব মেশিন কেনার নামে অর্থ লোপাটসহ নানা অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ । ইনডিপেনড্ন্ট টেলিভিশনের অনুসন্ধানে এসব তথ্য মেলে সরকারি সংস্থা তুলা উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী পরিচালক ফরিদ উদ্দিনের বিরুদ্ধে।

১৯৯৮ সালে কীটপতঙ্গ বিশেষজ্ঞ পদে তুলা উন্নয়ন বোর্ডে যোগ দেন ফরিদ উদ্দিন। পরে ২০১৩ সালে সম্প্রসারণ ও মার্কেটিং মনিটরিং বিভাগের অতিরিক্ত পরিচালকের দায়িত্ব পান। এর ঠিক ১ বছরের মধ্যেই চলতি দায়িত্ব পেয়ে নির্বাহী পরিচালক হন। অবসরে যাওয়ার ঠিক দেড় মাস আগে সুপেরিয়র সিলেকশন বোর্ডের সুপারিশে পঞ্চম গ্রেড থেকে সরাসরি প্রথম গ্রেডের কর্মকর্তা হিসেবে পদোন্নতি পান।

নানা অনিয়মের অভিযোগে, ২০১৮ সালে দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদকে তলব করা হয় ফরিদ উদ্দিনকে।

বোর্ডের স্টোর কাম ফিল্ডম্যান মাহফুজুর রহমান ৭ বছর আগে মেয়ের চিকিৎসার জন্য ছুটি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র পাড়ি দিলেও দপ্তরের খাতায় এখনো ছুটিতে।

অনুসন্ধানে দেখা গেছে, গত তিন মাসে বড় অংকের ঘুষের বিনিময়ে রংপুর ও দিনাজপুর তুলা গবেষণা কেন্দ্রে শ্রমিক নিয়োগ দেয়ার অভিযোগও রয়েছে, নির্বাহী পরিচালকের বিরুদ্ধে।

প্রতিষ্ঠানটির ল্যাবে দুই কোটি টাকা ব্যয়ে জার্মানি থেকে- এইচ বি আই– ৯০০০ মডেলের মেশিন স্থাপনের কথা থাকলেও মাত্র ৩৭ লাখ টাকা ব্যয়ে কেনা হয়েছে- এইচ বি টি মডেলের অন্য মেশিন। যা থেকে লোপাট করা হয়েছে প্রায় দেড় কোটি টাকা।

দুই বছর আগে অবসরকালীন ছুটিতে যাওয়া জিনিং অফিসার সোহরাব হোসেন কেন অফিসে বসেই কাজ করছেন তা নিয়েও আছে নানা জল্পনা-কল্পনা।

এছাড়া আঁশ প্রযুক্তিবিদ আবু তালেব চৌধুরীর ল্যাবে থাকার কথা থাকলেও ব্যবহার করছেন অন্য একটি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষ। পরিচালকের সঙ্গে আতাঁত করে অবৈধভাবে ফ্ল্যাট ও গাড়ি কেনার অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

উচ্চমান সহকারী রুনা পারভীনের দায়িত্ব পালনের কথা রাজধানীর সদর দপ্তরে। কিন্তু চলতি দায়িত্বে নিয়ে তিনি কাজ করছেন নিজ এলাকা- শ্রীপুর তুলা উন্নয়ন খামারে। তবে সদর দপ্তরের সকল অর্থিক সুবিধা পাচ্ছেন তিনি। এর সত্যতা খুঁজতে গেলে ইনডিপেনডেন্ট টিমকে অবরুদ্ধ করেও রাখা হয়।

এসব অনিয়মের বিষয়ে ফরিদ উদ্দিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি সব অভিযোগ অস্বীকার করেন। সেই সঙ্গে সরাসরি ক্যামেরার সামনে কথা বলতেও রাজি হননি।

খবরটি শেয়ার করুন...

Comments are closed.




© All rights reserved © 2018-20 boguratribune.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com