লালগালিচায় সোনালি ঐশ্বরিয়া

লালগালিচায় সোনালি ঐশ্বরিয়া

৭২তম কান চলচ্চিত্র উৎসবের লালগালিচার ওপর গতকাল ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন

কান চলচ্চিত্র উৎসবের লালগালিচা মানেই অভিনেত্রীদের কাঙ্খিত বাসনা। সেই উৎসবে ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন যাচ্ছেন ১৭ বছর ধরে। ওই লালগালিচা এখন তার কাছে পড়শির বাড়ি যাওয়ার পথের মতো। তবে ২০০২ সাল থেকে প্রতিবারই লালগালিচায় “চমক’ দেখিয়েছেন তিনি। সেই ধারাবাহিকতায় এবারও সেই গালিচার ওপর দিয়ে হেঁটে গেছেন সোনালি ঐশ্বরিয়া।
 
গেছে মৎস্যকন্যার সাজে। তার কানের এই ফিশকাট গাউনটির নকশা করেছেন জ্য লুইস সাবাজি। সবুজাভ সোনালি এ পোশাকের নিচের অংশের নকশা নেওয়া
হয়েছে মৎস্যকন্যার লেজের ধারণা থেকে। গাউনটির বিশেষত্ব হাতা ও লম্বা লেজে। ডান হাত লম্বা, বা পাশ স্লিভলেস। গাউনের লম্বা লেজে বড় থেকে ছোট মোট ছয়টি চোখা কাট রয়েছে।
 
দুই হাতের দুটি আংটি ছাড়া তার শরীরে আর কোনো অলংকার ছিল না। পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে নখে ছিল সোনালি নেলপলিশ, সঙ্গে অভিজাত মেকআপ, ন্যুড লিপস্টিক আর ম্মোকি আই। চুল ছিল ষ্ট্রেট। কালো খোলা চুল ছেড়ে রেখেছিলেন পিঠের ওপর।
 
এবারও কানে ঐশ্বরিয়া সঙ্গে ছিল তার সাত বছরের মেয়ে আরাধ্য। ২০১২ সাল থেকে মায়ের সঙ্গে কানে যাচ্ছে আরাধ্য। মায়ের সঙ্গে মিলিয়ে সে পরেছিল হলুদ রঙের ফ্রক। ফ্রকের ওপরের বা পাশে হলুদ রঙের বড় আকারের একটি গোলাপ ফুল। মা- মেয়ের ছবি পোস্ট করে ঐশ্বরিয়া ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন, ‘যেমন মা, তেমনি মেয়ে।’
 
উৎসবের দ্বিতীয় দিন ঐশ্বরিয়াকে দেখা গিয়েছিল রামি কাদির নকশা করা পোশাকে। তবে ঐশ্বরিয়ার কাছে প্রথম কান চলচ্চিত্র উৎসবের সাজটিই ছিল সবচেয়ে প্রিয়। সে সময় পুরোদস্তর এক ভারতীয় নারীর সাজে হাজির হয়েছিলেন তিনি। – হিন্দুস্তান টাইমস

খবরটি শেয়ার করুন...

Comments are closed.




© All rights reserved © 2018-20 boguratribune.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com