‘ক্যাসিনোর সাথে প্রশাসনের কেউ জড়িত থাকলে ব্যবস্থা’

‘ক্যাসিনোর সাথে প্রশাসনের কেউ জড়িত থাকলে ব্যবস্থা’

ক্যাসিনোর সাথে প্রশাসনের কেউ জড়িত থাকলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে হুশিয়ারি দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন। সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আজ এ হুশিয়ারি দেন। এদিকে, ডিএমপি কমিশনার মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম বলেছেন, ক্যাসিনোর নেপথ্যে যত প্রভাবশালীরাই জড়িত থাকুক না কেন, আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো কোনো ছাড় দেবে না।
 
রাজধানীর গুলশান বনানী ও আরামবাগ-মতিঝিল এলাকায় ক্যাসিনো বা জুয়ার আসর ছিলো অনেক আগে থেকেই। এসব অবৈধ আসরের মদদ দিতেন স্থানীয় প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতাসহ প্রশাসনের অনেকে।
 
এসব ক্যাসিনোর বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর কড়া হুঁশিয়ারির পর, নড়েচড়ে বসে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, বিশেষ করে বুধবার সন্ধ্যা থেকে রাতভর গুলশান ও আরামবাগের ক্যাসিনোতে অভিযান চালায় র্যা ব। সারা রাত অভিযান চালিয়ে ৫টি ক্যাসিনো থেকে বিপুল পরিমান মাদক দ্রব্য, ৪০ লাখ নগদ টাকা, কষ্টি পাথরের মুর্তি, ২টি আগ্নেয়াস্ত্র ও ২০১ জনকে আটক করা হয়, এদের মধ্যে কয়েকজন বিদেশিও আছে।
 
কারা পরিচালনা করছে এসব ক্যাসিনো, তার তালিকা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ডিএমপি কমিশনার। ইতোমধ্যে এলাকাভিত্তিক এসব ক্যাসিনোর তালিকা তৈরি করা হয়েছে, এর সঙ্গে জড়িতদের আটকের কাজও চলছে।
 
এদিকে, সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, সরকার কোনো ক্যাসিনোর অনুমতি দেয়নি। ক্যাসিনোর সাথে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। প্রশাসনের কেউ জড়িত থাকলে, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালিত হবে।
 
এরইমধ্যে গতকালের পর থেকে গুলশান-বনানি ও মতিঝিলের সব ক্যাসিনো বন্ধ আছে। গা ঢাকা দিয়েছে এসব ক্যাসিনোর মদদদাতারা।

খবরটি শেয়ার করুন...

Comments are closed.




© All rights reserved © 2018-20 boguratribune.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com